ডেস্ক রিপোর্ট : যুক্তরাষ্ট্র থেকে দেশে ফেরা ডা. ফেরদৌস খন্দকারকে কোন আইনে কোয়ারেন্টাইনে রাখা হয়েছে, তা জানতে চেয়ে লিগ্যাল নোটিশ পাঠানো হয়েছে। শুক্রবার ই-মেইলে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের জননিরাপত্তা বিভাগের সিনিয়র সচিব, স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের সুরক্ষা সেবা বিভাগের সচিব এবং বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন মন্ত্রণালয়ের সচিব বরাবরে এ নোটিশ পাঠানো হয়।

সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী জামিউল হক ফয়সালের পক্ষে ব্যারিস্টার গাজী ফরহাদ রেজা এ নোটিশ পাঠান। দুই দিনের মধ্যে নোটিশের জবাব দিতে বলা হয়েছে।

নোটিশে বলা হয়, গত ৭ জুন কাতার এয়ারওয়েজের প্লেন নিউইয়র্ক থেকে ১১২ বাংলাদেশিকে নিয়ে দেশে ফিরে। যাদের মধ্যে যুক্তরাষ্ট্রের বিভিন্ন কলেজ ও বিশ্ববিদ্যালয়ে অধ্যায়নরত ছাত্র-ছাত্রী, উচ্চ ডিগ্রি অর্জনে যাওয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক, বিভিন্ন ট্রেনিংয়ে অংশগ্রহণকারী, দর্শনার্থী, পেশাজীবী ও ব্যবসায়ী ছিলো।

এর আগেও গত ১৫ মে যুক্তরাষ্ট্রে আটকে থাকা ২৪২ জন বাংলাদেশিকে নিয়ে কাতার এয়ারওয়েজের আরেক বিশেষ ফ্লাইট ওয়াশিংটন থেকে দেশে ফিরে। এছাড়া গত ৮ জুন করোনা মোকাবিলায় চীন থেকে বিশেষজ্ঞ দল ঢাকায় এসেছে।

এতে বলা হয়, প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টাইনে নিয়ে যাওয়ার ক্ষেত্রে সবার বিষয়ে সমান বিবেচনা প্রসূত সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়নি, যেটি বাংলাদেশের সংবিধানে প্রদত্ত মৌলিক অধিকারের সুস্পষ্ট লঙ্ঘন।