স্টাফরিপোর্টার : সরকারের সাংবাদিক কল্যান ট্টাষ্টের পক্ষ থেকে সাংবাদিকদের আর্থিক সহায়তার বিষয়টি কেমন যেন ধোঁয়াশায় ঘেরা। বিষয়গুলো স্পস্ট করার দাবি করেছে তৃণমূল সাংবাদিকদের জাতীয় নেটওয়ার্ক বাংলাদেশ মফস্বল সাংবাদিক ফোরাম-বিএমএসএফ।

(এক) করোনায় রাজধানীর সাথে সকল যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন। ঢাকার বাইরে মফস্বলের সাংবাদিকেরা কার কাছে কিভাবে আবেদন করবেন?

(দুই) কত তারিখের মধ্যে আবেদন এবং কার বরাবরে সাথে কি কি জমা দিতে হবে। এই মূহুর্তে বৈশ্বিক সমস্যার কথা চিন্তা করে অনলাইনে আবেদনের ব্যবস্থা করা উচিত।

(তিন) চাকরিচ্যুত, বেতন ভাতা পান না এমনকি ৬ মাস ধরে বেকার, এমন সাংবাদিকের জন্য। অনুদানটি যেহেতু করোনায় ক্ষতিগ্রস্থ সাংবাদিকের জন্য দেয়া হচ্ছে। সেখানে শুধু চাকরিচ্যুত সাংবাদিকরাই নয়, সকল সাংবাদিককে আওতায় আনা উচিত।

(চার) সাংবাদিক কল্যান ট্টাষ্ট শুধু ঢাকার সাংবাদিকের জন্য নহে। তাই জেলা কোটা পদ্ধতি বাস্তবায়ন করতে হবে।

(পাঁচ) অনুদান বন্টনের ক্ষেত্রে মফস্বলের সাংবাদিকদের নিয়ে কাজ করা সংগঠনসমুহকে মূল্যায়ন করতে হবে।

ইতিমধ্যে গত ১৯ মে মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশে তথ্যমন্ত্রী ঘোষনা দেয়ার পর মফস্বলের সাংবাদিকদের মাঝে নানা প্রশ্ন জেগেছে।

যেহেতু দেশে মহামারী করোনায় সকল গণপরিবহন বন্ধ, অন্যদিকে সামনে ঈদ সমাগত। যেভাবে ঢাকায় সংগঠনের নেতাদের সুপারিশসহ কড়াকড়ি নিয়মে অনুদানটি ছাড় করা হবে তাতে ঢাকার বাইরের সাংবাদিকের মাঝে হতাশা বেড়ে যাচ্ছে।

বিষয়টি মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা, তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ এবং সাংবাদিক কল্যান ট্টাষ্টের ব্যবস্থাপনা পরিচালক জাফর ওয়াজেদ’র দৃষ্টি আকর্ষন করা হচ্ছে।