১০৫ ক্যাটাগরিতে অনলাইন নিবন্ধনের মাধ্যমে শুরু হয়েছে আইসিটি অস্কার খ্যাত অ্যাপিকটা অ্যাওয়ার্ডের জাতীয় পর্যায়ের প্রতিযোগী বাছাইয়ে বেসিস ন্যাশনাল আইসিটি অ্যাওয়ার্ড ২০২০। ৩১ জানুয়ারি পর্যন্ত চলবে নিবন্ধন। ভার্চুয়াল পদ্ধতিতে অনুষ্ঠিত এই প্রতিযোগিতা। প্রতিজোগিতার বিচারকার্য করা হবে ডিজিটাল টুলসের মাধ্যমে। ফেব্রুয়ারির শেষ সপ্তাহে এই প্রতিযোগিতার পুরস্কার বিতরণ করা হবে।

সোমবার (১১ জানুয়াির) বেসিস সভাপতি সৈয়দ আলমাস কবির অনলাইন সংবাদ সম্মেলনে এসব তথ্য জানান।

তিনি বলেন, অনলাইনে অনুষ্ঠিত হওয়ায় এবার গ্রামের প্রতিযোগীদের অংশগ্রহণ অনেকটাই সহজ হয়ে গেলো। অনলাইন সুবিধা কাজে লাগিয়ে এবারের প্রতিযোগিতায় সবচেয়ে বেশি সংখ্যক প্রতিযোগী অংশ নেবেন।

সংবাদ সম্মেলনটি সঞ্চালনা করেন প্রতিযোগিতার সহ-আহ্বায়ক রাশেদ কামাল। সম্মেলনে আরো বক্তব্য দেন বেসিস সিনিয়র ভাইস প্রেসিডেন্ট ফারহানা এ রাহমান এবং আইপিডিসি সিইও মোমিনুল ইসলাম।

বেসিস সভাপতি বলেন, তরুণ জনসম্পদকে দক্ষ করে বৈশ্বিক উদ্ভাবনী ধারণা সূচকে বাংলাদেশের পতাকাকে আরো উজ্জ্বল করতেই এই প্রতিযোগিতার আয়োজন। নতুন প্রযুক্তি নিয়ে অংশ নিলে বিজয়ী হওয়ার সম্ভাবনা বেশি।

আইপিডিসি সিইও মোমিনুল ইসলাম জানান, তথ্যপ্রযুক্তি শক্তি কাজে লাগানোর কারণে মহামারি করোনাতেও আইপিডিসি’র মুনাফা ২০১৯ সালের চেয়ে ২০২০ সালে অনেকাংশে বেড়েছে।