বরুড়া প্রতিনিধিঃ কুমিল্লার বরুড়ায় জমি নিয়ে বিরোধের জের ধরে গাড়ি ও ঘরের গ্লাস ভাঙচুর খবরের ভিন্নমত প্রকাশ করেছেন প্রতিপক্ষ মোস্তফা কামাল ও তার ভাই মোস্তফা জামাল।
তার জানান, ২০ বছর আগে মহিদপুর সুয়াচো দও বাড়ির মৃত জোগেশ দত্তের ৩৬ শতক জমি আমার জেঠাতো ভাই জলম কামলাপাড়ার সফিকের কাছে বিক্রি করেন। পরে সফিক আবার আমার চাচাত ভাই হেলালের কাছে ওই জমি বিক্রি করেন। সফিক হেলালকে দলিল দিতে গিয়ে দেখে অর্ধেক জমি তার নমে আছে। বাকি জমি বিপি (এনিমি) হয়ে আছে।
রেকর্ড ঠিক করে এই জমি সফিকের নামে ফেরত আনতে ৬০/৭০ হাজার টাকা খরচ হতে পারে।
খরচের এই টাকা নিয়ে ক্রেতা সফিক ও বিক্রেতা মৃত জোগেশ দত্তের ছেলে রতন দত্ত ও লক্ষন দত্তের মাঝে বিরোধ সৃষ্টি হয়। এঘটনায় জামাল বলেন ২০ বছর আগে যেহেতু সফিক জমি ক্রয় করেছে সেহেতু খরচেটাতো সেই দিবে। এ নিয়ে সফিক গং ও জামাল গংদের মধ্যে সংঘর্ষ সৃষ্টি হয়। এতে চায়নিজ কুড়ালের কোপ জামালের মাথায় আটটি সেলাই লাগে। অপর দিকে সফিকের ঘর ও প্রাইভেটকারের গ্লাস ভাংচুর হয়।
পরে উভয় পক্ষের অভিযোগের ভিত্তিতে বরুড়া থানার এস আই আনিস ও এস আই উত্তম ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন।
পরে স্থানীয় ঝলম ইউনিয়নের চেয়ারম্যান নুরুল ইসলাম গত ১২ আগষ্ট সামাজিক ভাবে বিষয়টি ফয়সালা করে দেন। মোস্তফা কামাল ও মোস্তফা জামাল বলেন মীমাংসিত বিষয় নিয়ে প্রকাশিত সংবাদটি আমাদের নজরে আসায় আমরা এর ভিন্নমত প্রকাশ করে তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাচ্ছি।