হাকিকুল ইসলাম খোকন ,মো :নাসির,হেলাল মাহমুদ,বাপসনিউজ,আইবিএন:খুলনা বিএনপি নেতার এমএ ছালেকের ঝুলন্ত মরদেহ উদ্ধারে গভীর উদ্বেগ ও উৎকন্ঠা প্রকাশ করেছেন বাংলাদেশ জাতীয় মানবাধিকার সমিতি।

৩ সেপ্টেম্বর বৃহষ্পতিবার গণ মাধ্যমে প্রেরিত এক বিবৃতিতে নেতৃবৃন্দ এই উৎকন্ঠা ও উদ্বেগের কথা জানান।

বাংলাদেশ জাতীয় মানবাধিকার সমিতি’র চেয়ারম্যান মোঃ মঞ্জুর হোসেন ঈসা, মহাসচিব এ্যাড.সাইফুল ইসলাম সেকুল এবং সাংগঠনিক সম্পাদক লায়ন আল আমিন যৌথ ‍বিবৃতিতে আরো বলেন, খুলনা খালিশপুরের ৯নং ওয়ার্ডের এম.এ ছালেক তিনি শুধু বিএনপি’র রাজনীতির সাথেই সম্পৃক্ত ছিলেন না বরং তিনি সামাজিক দায়বদ্ধতা নিয়ে মানুষের অধিকার ও গণতন্ত্রের পক্ষেও কাজ করেছেন। খুলনায় সবুজ বনায়নে তার বিশেষ ভূমিকা রয়েছে। সবার সাথে হাস্যউজ্জল মিশুক এম.এ ছালেক কিভাবে তার ঝুলন্ত মরদেহ পাওয়া গেল তার সঠিক তদন্ত করে প্রকৃত ঘটনা উদঘাটন করা সময়ের দাবী।তিনি যেভাবে সমাজ সচেতন ছিলেন কোন ভাবেই আত্মহত্যার মত কাজ করতে পারেন না।খবর বাপসনিউজ।

তার অকাল মৃত্যুতে গভীর শোক প্রকাশ করেন এবং শোকাহত পরিবারের প্রতি গভীর সমবেদনা জ্ঞাপন করেন।

উল্লেখ্যঃ খুলনা মহানগরীর খালিশপুর মুজগুন্নী থেকে বিএনপি নেতা এম এ ছালেকের ঝুলন্ত মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। মঙ্গলবার ( ০১ সেপ্টেম্বর) রাত সাড়ে ৮টার দিকে মুজগুন্নী মেলার মাঠ এলাকার নিজ ঘর থেকে তার মরদেহ উদ্ধার করা হয়।

বিষয়টি নিশ্চত করেছেন খালিশপুর থানার অফিসার ইনচার্জ মো. সাব্বিরুল আলম।

তিনি জানান, মুজগুন্নী মেলার মাঠ এলাকায় ছালেক নামে এক ব্যক্তি আত্মহত্যা করেছেন। স্থানীয়দের মাধ্যমে সংবাদ পেয়ে রাত সাড়ে ৮টার দিকে নিজ ঘরের ফ্যানের সঙ্গে গামছা প্যাচানো অবস্থায় তার ঝুলন্ত মরদেহ উদ্ধার করা হয়। এ বিষয়ে খালিশপুর থানায় অপমৃত্যু মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে।

খুলনা মেট্রোপলিটন পুলিশের এডিসি (নর্থ) সোনালী সেন জানান, স্ত্রীর সঙ্গে ঝগড়ার জের ধরে সালেক গলায় গামছা পেঁচিয়ে আত্মহত্যা করেছেন বলে তারা প্রাথমিকভাবে জানতে পেরেছেন।

মহানগরীর ৯ নং ওয়ার্ড বিএনপির সভাপতি এডভোকেট মোহাম্মদ আলী বাবু বলেন, সালেক খালিশপুর থানা বিএনপির সাবেক সহ-দপ্তর সম্পাদক ও খুলনা মহানগর ছাত্রদলের সাবেক সহ-সভাপতি ছিলেন।