হাতিয়া (নোয়াখালী) প্রতিনিধি: নোয়াখালীর দ্বীপ উপজেলা হাতিয়ায় জোয়ারের কারণে ৬টি ইউনিয়নের ২০টি গ্রাম প্লাবিত হয়েছে। বুধবার দুপরের জোয়ারের পানি বাড়তে থাকায় এসব এলাকা প্লাবিত হয়। এতে উপজেলার সূখচর, চরঈশ্বর, নলচিরা, তমরদ্দি, সোনাদিয়া ও নিঝুমদ্বীপ ইউনিয়নের ২০টি গ্রাম প্লাবিত হয়েছে।

জানাযায়, ঘূর্নিঝড় আম্পানের সময় ভেঙ্গে যাওয়া বেড়ীবাঁধ মেরামত না করায় এসব এলাকা অস্বাভাবিক জোয়ারের পানিতে সহজে প্লাবিত হয়। এতে সূখচর ইউনিয়নের চরআমান উল্যা, বৌবাজার, চেয়ারম্যান বাজার। নলচিরা ইউনিয়নের তুপানিয়া, নলচিরা ঘাট এলাকা। চরঈশ্বর ইউনিয়নের তালুদার গ্রাম, ফরাজী গ্রাম, ৭নং গ্রাম, মাইজচা মার্কেট এলাকা প্লাবিত হয়। এসব এলাকার প্রায় ২০ সহশ্রাধীক মানুষ পানি বন্ধি হয়ে পড়ে।
চরইশ্বর ইউপি সদস্য কামরুল ইসলাম মহব্বত বলেন, দুপরের পর থেকে শুর হওয়া জোয়ারের পানিতে অনেকের বসতবাড়ী ডুবে যায়। নলচিরা ঘাটের প্রায় ২০টি দোকান ঘরে পানি ডুকে মালামাল নষ্ট হওয়া সহ ৫টি দোকান ¯্রােতের টানে পানিতে ভেসে যায়। জোয়ারের পানিতে অনেকের বাড়ীর পুকুরের মাছ চলে যায়।
তমরদ্দি ইউপি চেয়ারম্যান ফররুখ আহমেদ জানান, বর্ষার টানা বৃষ্টি ও অস্বাভাবিক জোয়ারের কারণে তমরদ্দি ইউনিয়নের নিন্মাঞ্চল গুলি প্লাবিত হয়েছে। দ্রæত বেড়ী বাঁধ সংস্কার করা প্রয়োজন।
নিঝুমদ্বীপ বীট কর্মকর্তা সাইফুর রহমান জানান, জোয়ারের কারণে নিঝুমদ্বীপে নতুন সৃজন করা ঝাউ বাগান সহ নিম্মাঞ্চল গুলো ৩ফুট পানিতে ডুবে যায়।
এ ব্যাপারে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো: রেজাউল করিম জানান, বেঁড়ীবাদ মেরামতের জন্য পানি উন্নয়ন বোর্ডের সাথে একাধিকবার যোগাযোগ করে কোন ফল পাওয়া যায়নি।