নেত্রকোনা প্রতিনিধি : নেত্রকোনার কেন্দুয়ার বলাইশিমুল মধ্যপাড়া এলাকায় বসত ভিটা দখলের ঘটনায় প্রতিপক্ষের হামলায় একই পরিবারের ৪ জন গুরুত্বর আহত হয়েছেন। যানাযায় গত ৪-০৫-২০ রোজ সোমবার বেলা দেড় টায় উপজেলার বলাইশিমুল মধ্য পাড়া এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। এতে আহতদের নেত্রকোনা সদর সরকারী হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

গুরুত্বর আহত মোঃ শাহআালম( ২৮) পিতা মতিউর রহমান। এঘটনায় মোঃশাহআলম বাদী হয়ে গত ৭-০৫ ২০ রোজ বৃহস্পতিবার কেন্দুয়া থানায় ১০ জনকে আসামী করে লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন।

থানায় লিখিত অভিযোগ ও মামলার বাদী মোঃশাহআলম অভিযোগে জানায়, ওই দিন দুপুরে বিবাদী গন সংঙ্গবদ্ধ হয়ে অস্ত্র শস্ত্র নিয়ে উল্যেখিত আসামীরা সহ অজ্ঞাত আরোও ৫-৬ জনের একটি দল তার বসত ভিটায় হামলা চালায়।

এসময় সন্ত্রাসীরা রামদা,লাঠি রড সহ দেশীয় অস্ত্রের মহড়া চালিয়ে আমাকে এবং আমার পরিবারের লোকজনদের এলোপাতাড়ি কোপাতে থাকে এবং লাঠি দিয়ে মারধর করেন। তাদের চিল্লাচিল্লিতে এলাকাবাসী এগিয়ে আসলে সন্ত্রাসীরা পালিয়ে যান।

আসামীরা হলেন মোজাম্মেল হক (২৮) পিতা মৃত আঃ গণি, শহীদ মিয়া (৩৮), ওবায়দুল (৩০), আতিকুল (২৬), আয়াতল (২৩), অলি মিয়া (৩৫), সানোয়ার (২১) সর্বপিতা মোঃ দীন ইসলাম, মোঃ নূরুল ইসলাম (৬২), মোঃ দীন ইসলাম (৬০) উভয়পিতামৃত কালা চাঁন, মোঃ লালন মিয়া (৩০) পিতা মোঃ নূরুল ইসলাম।

তিনি আরো জানান, আসামিরা পূর্বথেকেই আমার বসত ভিটা দখলের পায়তারা করে আসছে,অতিথেও এমন রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষ হয়েছিল।
এলাকায় বিষয়টি নিয়ে একাধিক সালিশ বৈঠক ও হয়, কিন্তু এতে ফলপ্রসু হয় না।প্রতিপক্ষ মোজাম্মেল গংরা দিনদিন বেপরোয়া হয়ে উঠছে।
ঘটনার পর থেকে এলাকায় চরম উত্তেজনা বিরাজ করছে। এদিকে ভুক্তভোগী পরিবার ফের রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষের আশংকা করছেন।

ঘটনার সঠিক বিচারের আশায় থানায় মামলা করেন মোঃ শাহআলম।এবিষয়ে কেন্দুয়া থানার অফিসার ইনচার্জ বলেন, থানায় অভিযোগ পেয়েছি, আমরা দ্রুতই ঘটনার তদন্ত সাপেক্ষে আইনআনুগ ব্যবস্থা গ্রহন করবো।