২২ শে শ্রাবণের আকুতি ”

রাজলক্ষ্মী মৌসুমী

হে কবি গুরু তুমি মৃত্যুকে জয় করেছো
তাই তো তুমি মৃত্যুঞ্জয়।
তুমি আছো অদ্যাবধি।
তুমি আছো প্রেমে,পূজায়, আরাধনায়, প্রকৃতির আনাচে কানাচে, পাহাড় পর্বত, নদ- নদী সর্বত্রে তুমি আছো
তোমার জয়ধ্বজার কেতকী
আমাদের মনের কোঠরে।
তোমার স্বরলিপি আরোহী অবরোহীতে
ঝংকৃত হয় শিল্পীর মনের গহীনে।
তুমি আছো আমাদের অন্তরালে।
সেতারের সাতটি তারে তারে।
তোমার সুরের বীণা যে মা সরস্বতীর হাতে।
তুমি ক্ষণে ক্ষণে সুরের বিতানে আবির্ভূত হও।
তোমার গড়া গীতবিতানের সুরলহরীতে
প্রতিনিয়ত তোমার পদচারণা।
বাইশে শ্রাবণ হলো তোমার বিসর্জন।
কিন্তু তুমি তোমার কবিতা গুচ্ছে তুমি তোমার স্বপ্নের
আকাশ। তোমার আবেগিক কথা মালার মাঝেই
তুমি বিদ্যমান।
তোমার জন্মদিন হোক যুগে যুগে কিন্তু তোমার প্রয়াণ দিবস হোক তোমার গীতবিতানের,গল্পগুচ্ছের পাতায় পাতায়।।আমরা সেই সুবাস নিতে চাই প্রতি নিঃশ্বাসে প্রশ্বাসে।
তোমার সুরের সুবাস ছড়িয়ে দিতে চাই ঐ গগনের তাঁরার

ভেলায়,
বাইশে শ্রাবণের করুণ আকুতি ভাসিয়ে দিতে চাই স্বরলিপির সপ্তডিঙ্গায়।